ঢাকা, শুক্রবার, ৭ই মাঘ, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ, ২০শে জানুয়ারি, ২০১৭ ইং, ২১শে রবিউস-সানি, ১৪৩৮ হিজরী
bartabazar viber

স্বামীর নির্যাতনে একই গ্রামে ঘর ছাড়া দুই নারী
বার্তা বাজার ডেস্ক | প্রকাশিত: অপরাহ্ণ ৬:৫৩ , অক্টোবর ৩০, ২০১৬

শাহরিয়া হৃদয়, কিশোরগঞ্জ ব্যুরোঃ সারা বিশ্ব যেখানে নারী অগ্রযাত্রার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, তখন বাংলাদেশ সরকার ও বিভিন্ন এনজিওসহ নানা সামাজিক সংগঠনগুলিও নারী অধিকার নিয়ে অসামান্য হলেও জাগ্রত রয়েছে। আর সেখানে আজও অবহেলিত হয়ে আছে কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার এই দুই নারী, সূচনা ও খাদিজা।

তাছাড়াও নারীদের ধর্ষণ, ইভটিজিং আতঙ্ক এবং বিয়ের পর পারিবারিক কলহসহ যৌতুকের জন্য স্বািমীর নানা রকম চাপের মধ্যে থাকতে হয় দিনের পর দিন। আর স্বামীর এমন নির্যাতনের শিকার হয়ে ঘরছেড়ে বাবার বাড়িতে বড় কষ্টে জীবন যাপন করছে সূচনা ও খাদিজা। তাঁদের ব্যাপারে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত আড়াই মাস পূর্বে উপজেলার সালুয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ সালুয়া গ্রামের সূচনা আক্তার (২০)’র বিয়ে হয় একি উপজেলার ছয়সূতী ইউনিয়নের মাটিকাটা গ্রামের শরিফুল ইসলামের সাথে।

পরে কিছু দিন যেতে না যেই সূচনার সংসার জীবনে শুরু হয় পারিবারিক কলহ আর যৌতুকের জন্য তাঁর উপর নির্যাতন। অবশেষে সূচনা এসব মারধোর আর নানা রকম নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে স্বামীর সংসার ছেড়ে বাবার বাড়িতে এসে আশ্রয় নেই। কিন্তু তবুও সূচনা শত নির্যাতন সহ্য করে আবার স্বামীর ভিটায় ফিরে যেতে চাইলেও নানা প্রতিকূলতার কারণে তা সম্ভব না হওয়ায় অবশেষে কিশোরগঞ্জ কোর্টে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালে মামলা করেন (মামলা নং ৬/১০/২০১৬ এর ৬৫৮)।

অপর দিকে একি উপজেলার পশ্চিম জগতচর গ্রামের খাদিজা আক্তার (১৯) ফুফুর প্ররোচনায় বিয়ে করে নূরু মিয়া (৩০) নামের এক বিয়ে পাগল ভিন দেশীকে। খাদিজার ১ বছর পুর্বে বিয়ে হলেও দুই মাস শ্বশুর বাড়িতে সংসার করার পর ভন্ড নূরু খাদিজাকে ফেলে অন্যত্র গিয়ে আবার বিয়ে করেন। এব্যাপারে খাদিজা সাংবাদিকদেরকে জানান, তাঁর স্বামী মাদক ও নারী ব্যবসায়ী এ পর্যন্ত ৬টি বিয়ে করেছেন।  অধিকার, ভরন-পোষণ থেকে বঞ্চিত এই খাদিজা এখন খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাচ্ছে হত দরিদ্র বাবার সংসারে। এসব বিষয়ে খোঁজ নিলে আরো জানা যাবে যৌতুক লুভী স্বামীদের নির্যাতনের শিকার হয়ে বাবার সংসারে বোজা হয়ে আছে কত সূচনা আর কত খাদিজারা।

বার্তা বাজার.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।