ঢাকা, বুধবার, ১০ই ফাল্গুন, ১৪২৩ বঙ্গাব্দ, ২২শে ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ইং, ২৪শে জমাদিউল-আউয়াল, ১৪৩৮ হিজরী
bartabazar viber

‘রাষ্ট্রকে কর না দিলে পরপারে হিসাব দিতে হবে’
বার্তা বাজার ডেস্ক | প্রকাশিত: অপরাহ্ণ ১০:০১ , জানুয়ারি ৮, ২০১৭

কর না দিয়ে এনবিআরকে ঠকানো মানে বীরত্ব দেখানো নয় বলে মন্তব্য করেছেন বলে মন্তব্য করেছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রকে রাজস্ব না দিয়ে আমানতের খেয়ানত করলে পরপারে হিসাব দিতে হবে।’ রবিবার রাজধানীর কাকরাইল আইডিইবি ভবনে ক্ষুদ্র্র ও মাঝারি পর্যায়ের ব্যবসায়ীদের নিয়ে মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন, ২০১২-বিষয়ক এক কর্মশালায় তিনি এ কথা বলেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘আইনের একটি অংশে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রকে সঠিকভাবে কর দিতে হবে। ব্যবসায়ী, সরকারি কর্মকর্তা, জনগণ সবাই আমানতদার। ব্যবসায়ীরা রাষ্ট্রকে সঠিকভাবে কর না দিলে মনে করতে পারেন ফাঁকি দিলাম। এ ফাঁকি দেওয়ার জন্য এপারে না হলেও ওপারে আল্লাহর কাছে হিসাব দিতে হবে।’ তিনি বলেন, ‘করফাঁকি দিয়ে আমরা মনে করতে পারি ১৬ কোটি মানুষকে ঠকালাম। আসলে আমরা নিজেরাই ঠকে গেলাম।’
রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে মানুষের হক নষ্ট না করার জন্যও আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেন, ‘রাজস্ব ব্যবসায়ীসহ দেশের জনগণের কাছে রাষ্ট্রের আমানত।’
মো. নজিবুর রহমান বলেন, ‘নতুন মূসক আইন বাস্তবায়নে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অংশীদারিত্ব স্থাপন করা হচ্ছে। ধর্মীয় শিক্ষা গুরুরা হবেন এ আইনের জনমত সৃষ্টিকারী প্রধান ব্যক্তি। মুসলিম, হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান—এ চার ধর্মের যারা শিক্ষাগুরু, ইসলামিক ফাউন্ডেশনসহ সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান যারা দেখাশুনা করেন, তাদের ভ্যাটের পাশাপাশি আয়কর ও শুল্ক বিষয়েও প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘নতুন ভ্যাট আইন অনুযায়ী ক্ষুদ্র ও মাঝারী ব্যবসায়ী যাদের বার্ষিক টার্নওভার ৩০ লাখ টাকার ওপরে নয়, তাদের কোনও কর দিতে হবে না। যাদের বার্ষিক টার্নওভার ৩০ থেকে ৮০ লাখ টাকা তাদের ৩ শতাংশ হারে টার্নওভার কর দিতে হবে।’
কর্মশালায় এনবিআর চেয়ারম্যান মো. নজিবুর রহমান সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন এসএমই ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সফিকুল ইসলাম।

বার্তা বাজার.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।